কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করেছেন জেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক নওরিন রহমান। গত ১৯ সেপ্টেম্বর কুষ্টিয়া মডেল থানায় নওরিনের দেয়া একটি অভিযোগ বুধবার পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে জেলা সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ইউনিটকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এ মামলায় অভিযুক্ত নেতাকর্মীরা হলেন জেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক ফারদিন সৃষ্টি, সদস্য মোহাম্মদ হৃদয়, সদস্য রেফাউল ইসলাম, সদস্য শাকিল আহমেদ তুষার, সদস্য রাহাতুল ইসলাম ও কর্মী মুহায়মিনুল মিরাজ।

ছাত্রলীগের সহসম্পাদক নওরিন রহমান অভিযোগ করেছিলেন, তার কিছু ব্যক্তিগত গোপন ছবি অভিযুক্তরাসহ আরও কয়েকজন সম্প্রতি তাদের ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করেন।লিখিত অভিযোগে নওরিন দাবি করেন, তাকে হেয় করতেই অভিযুক্তরা এসব ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন।

এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া শহরের এনএস রোডে জেলা ছাত্রলীগের কার্যালয়ে অভিযুক্ত নেতাকর্মীরা এবং শহরের বড়বাজার এলাকার একটি রেস্তোরাঁয় নওরিন রহমান একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন।

এ সময় বিচার না পেলে আত্মহত্যার হুমকিও দেন নওরিন। এর পরই বিকেলে গত ১৯ সেপ্টেম্বর দেয়া তার অভিযোগটি মামলা হিসেব নথিভুক্ত করে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ।