মোত্তাহিদ ইসলাম মারজান | উলিপুর উপজেলা প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামে বন্যার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় বন্যা পরিস্হিতি অবনতি হচ্ছে। স্হানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা যায় ধরলা সেতু ব্রিজে ৩৪ সেন্টিমিটার ও ব্রাহ্মপুত্রের পানি চিলমারী পয়েন্টে ২০ সেন্টিমিটার বেগে বয়ে চলছে।

এমন অবস্থায় ধরলা ও ব্রাহ্মপুত্র পানি ধুকে পরায় নতুন নতুন চর এলাকা গুলো প্লাবিত হয়ে পরছে। এবং ঘরবাড়ি পানিতে ডুবে যাওয়ায় হাজারো পরিবার পানিবন্দি হয়ে আছে। রাস্তাঘাট যোগাযোগ ব্যাবস্হা ভেঙ্গে পড়েছে। ভাঙ্গন কবলিত এলাকা সমূহে পানি উন্নয়ন বোর্ড জিওটেক্সটাইল ব্যাগ দিয়ে রক্ষা করার চেষ্টা করলেও তা কার্যকর হচ্ছে না।

এদিকে উলিপুরের হাতিয়া ইউনিয়ন, বজরা ইউনিয়ন, থেতরাই ইউনিয়নে বন্যায় প্রচুর ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে সাধারণ জনগন। বন্যার কারনে ফসলের প্রচুর ক্ষতি হচ্ছে জানান কৃষকেরা রোপা আমন, সবজি ক্ষেত পানিতে তলিয়ে নিশ্চিহ্ন হয়েছে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম জানান, উজানে বৃষ্টিপাত কমে যাওয়ায় আশা করছি ধরলা ও তিস্তার পানি কমতে শুরু করবে। তবে ব্রাহ্মপুত্রের পানি আপাতত স্থিতিশীল থাকলেও আরো দুইদিন পর্যন্ত পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে।