বাংলাদেশ সরকারের সমাজসেবা অধিদপ্তর দ্বারা পরিচালিত নওয়াপাড়ায় ব্যাংক এশিয়ার মাধ্যমে নওয়াপাড়া হাইস্কুলের দুটি কক্ষ থেকে বয়স্ক ভাতার টাকা বিতরণ করা হচ্ছে। আর সেই টাকা তুলতে এসে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ। বাড়তি ভোগান্তি ছিল রেজিষ্ট্রেশন করতে আসা চলাচলের অনুপযোগী বয়স্কদের জন্য।

ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও টাকা তুলতে পারেনি অনেকে। অভয়নগর উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ব্যাংক এশিয়ার মাধ্যমে বয়স্ক ভাতার টাকা গ্রাহকদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে। সারাদেশে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে ৪৯ লাখ সুবিধাভোগীকে জনপ্রতি ৫০০ টাকা করে ভাতা প্রদান করা হচ্ছে।

বুধবার নওয়াপাড়ার হাইস্কুলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অসংখ্য বৃদ্ধ নারী পুরুষ স্কুলের বারান্দায় শুয়ে বসে রয়েছে। আবার ভীড় ঠেলে কেউ কেউ পরে এসে আগে টাকা তুলে নিয়ে যাচ্ছে। গাজিপুরের খোদেজা বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমি অসুস্থ মানুষ এসেছি সকাল ৮ টার আগে কিন্তু ঘরে ডুকতে পারিনি। অথচ সুস্থ লোকদের কে আগে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।

মোমেনা বেগম নামে একজন বৃদ্ধ বলেন, আমার এখানে অসার মত পরিস্থিতি নেই তবুও আসতে হয়েছে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে বলে। সবুর নামে একজন বলেন, এখানকার লোকজন সিরিয়াল ছাড়া টাকা দিচ্ছে, আমি গতকাল সারাদিন বসে থেকে ফিরে গেছি আজ এখনো সিরয়িাল পেলাম না। এব্যারে জানতে চাইলে দায়িত্বশীল কোন ব্যক্তি কথা বলতে রাজি হয়নি।