যশোরে মশিয়ার রহমান নামের এক ব্যাক্তিকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। ওই ব্যক্তি যশোর সদর উপজেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের সালিয়াট উত্তরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

এ ঘটনায় মশিয়ার রহমানের স্ত্রী মোছাঃ শাহনাজ বেগম দুজনের নাম উল্লেখসহ ৩/৪ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামী করে কোতয়ালী মডেল থানার ইনচার্জ বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। আসামীরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের সালিয়াট উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত কুরবান মোড়লের ছেলে সমর উদ্দীন (৪৫) ও একই গ্রামের সমির মোড়লের ছেলে মাসুম বিল্লাহ (৪০)।
অভিযোগপত্রে তিনি উল্লেখ করেছেন, আসামীদের স্থানীয় জনশ্রুতি ভাল না। অত্যন্ত খারাপ প্রকৃতির লোক এবং পর সম্পদ লোভী। জমি জমা সংক্রান্তে বিরোধের জের ধরে বিবাদীরা দীর্ঘদিন ধরে আমাকে সহ আমার পরিবারের লোকজনদেরকে মারপিট, খুন জখমের হুমকি দিয়া আসিতেছে। ইতিপুর্বে জমির বিষয় নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি করে আমার স্বামীকে মারপিট করে। উক্ত বিরোধের জের ধরে উক্ত বিবাদীদ্বয়সহ তাহাদের সহযোগী অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন বিবাদীরা অসৎ উদ্দেশ্যে গত ইং-২২/০৮/২০২২ তারিখ রাত্র অনুমান ০২.০০ ঘটিকার সময়ে আমার বসত বাড়ীর
বারান্দায় আসিয়া খাটের উপরে শুয়ে থাকা আমার ঘুমন্ত স্বামী মশিয়ার রহমানকে হত্যার উদ্দেশ্যে বিবাদীদ্বয় আমার স্বামীর গলা এবং মুখে চিপে ধরে রাখে। তখন আমার স্বামী গুংরাইতে থাকিলে টের পাইয়া আমি ঠেকাইতে গেলে বিবাদীদ্বয় আমাকে এলোপাতাড়ীভাবে কিল ঘুষি, চড় থাবা ও লাথি মারিয়া আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে নিলা ফোলা জখম করে। ২নং বিবাদী আমার পরনের কাপড় চোপড় টানা হেচড়া করিয়া পরনের কাপড় ছিড়ে বে-বস্ত্র করে শ্লীলতাহানী ঘটায়। ঘটনার সময়ে আমাদের ডাক চিৎকারে স্থানীয় মতিয়ার, মিলনসহ আরো অনেক লোকজন আগাইয়া আসিলে বিবাদীরা প্রকাশ্যে খুন জখমের হুমকি দিয়া দ্রুত চলিয়া যায়। তার অভিযোগ, বিবাদীরা প্রতিনিয়ত হুমকি ধামকি দিচ্ছে। তাহাদের হুমকি দেওয়ার ফলে আমরা আতংকে আছি। বিবাদীরা অথবা তাহাদের লোকজন যে কোন সময়ে আমাদেরকে মারপিট,খুন জখম, মিথ্যা মামলাসহ যে কোন বড় ধরনের ক্ষতি করিতে পারে।