হেনস্তা ও মারধরের অভিযোগ এনে রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস বলেছেন, আমরা তাদের (সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা) কাছের মানুষ হতে পারিনি। তাই আমাদের নির্যাতন করা হচ্ছে।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে গণমাধ্যমের সামনে এসব কথা বলেন তিনি।

সভাপতি ও সম্পাদকের ন্যায়-অন্যায়গুলো আমরা যারা ধরিয়ে দেই তারাই শত্রু হয়ে গেছি। কারণে অকারণে আমাদের হেনস্তা করা হচ্ছে। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যদি এই ঘটনার বিচার না হলে আমি আত্মহত্যা করব। এদিকে জান্নাতুল ফেরদৌসকে হেনস্তা ও মারধরের ঘটনায় বিচার চেয়ে রোববার সকালে কলেজ প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে শাখা ছাত্রলীগের ২০ নেত্রী।

এর আগে শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসকে হেনস্তা ও মারধরের অভিযোগে সভাপতি তামান্না জেসমিন ওরফে রীভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার বহিষ্কারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের অন্য পক্ষের নেতা-কর্মীরা। একপর্যায়ে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীরাও তাদের পক্ষে অবস্থান নিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে মিছিল করেছেন।

জানা গেছে, সম্প্রতি ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সিট বাণিজ্য, চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্মের বিষয়ে সাক্ষাৎকার দেন সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস। ওই সাক্ষাৎকার দেখে ক্ষুব্ধ হন তামান্না ও রাজিয়া।

শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসকে মারধর করে কলেজের হল থেকে বের করে দেয়া হয়। এরপরই কলেজে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তবে মারধরের অভিযুক্ত সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।