বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্ত ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগের পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু হয়েছে।

সুনামগঞ্জ জেলা সদর ও জামালগঞ্জ উপজেলার প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রার্থীরা।

রোববার (১৪ নভেম্বর) রাতে সুনামগঞ্জ সদর থানার ওসি (তদন্ত) এজাজুল ইসলাম বলেন, আমরা প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু করেছি। প্রার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য যাচাই করা হচ্ছে।

দুই উপজেলার প্রার্থীরা জানিয়েছেন, পুলিশ ভেরিফিকেশন শুরু হয়েছে। প্রার্থীদের ও বাবা-মায়ের এনআইডি কার্ডের ফটোকপি, সব সার্টিফিকেটের মেইন কপি দেখে তার ফটোকপি, স্কুল কলেজের প্রত্যয়ন, নাগারিকত্ব সনদ ও বিবাহিন না অবিবাহিত সে প্রত্যয়ন জমা নিয়েছেন। পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য টাকা নেওয়া হচ্ছে না।

এদিকে এনটিআরসিএ কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশ ফরমগুলো বিভিন্ন বিভাগে পাঠাচ্ছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ইতোমধ্যে বেশিরভাগ ফরম পাঠানো হলেও রাজশাহী বিভাগের কিছু জেলার ফরম এখনো পাঠানো হয়নি। শিগগিরই তা পাঠানো হবে।

জানা গেছে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের নিরাপত্তা শাখা পুলিশ ভেরিফিকেশনের কাজটি করছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে নিরাপত্তা-৩ শাখার উপসচিব সাগরিকা নাসরিনের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি।

চলতি বছরের ৩০ মার্চ ৫৪ হাজার শূন্যপদের বিপরীতে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এনটিআরসিএ। তবে বিভিন্ন নিবন্ধনের রিটকারীদের জন্য ২ হাজার ২০০টি পদ সংরক্ষণ করে বাকি পদগুলোতে শিক্ষক নিয়োগের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

তবে আবেদন না পাওয়া ও মহিলা কোটায় যোগ্য প্রার্থী না থাকায় ১৫ হাজার ৩২৫টি পদ ফাঁকা রেখে ৩৮ হাজার ২৮৬ পদে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়। তবে ছয় হাজার তিনজন প্রার্থী পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম পূরণ না করে পাঠানোয় ৩২ হাজার ২৮৩ জনের পুলিশ ভেরিফিকেশন করা হচ্ছে বলে জানা যায়।