৫এপ্রিল ২০২১ ইং স্মারক নং৩৮.০১.০০০০.৭০০.১৪.০১৯.১৮/১৯৭.১৪৩১ এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পএ নং৩৮.১৫০.১৮০.০২৬.০০.০০.৪৬.২০১৮-৬৫৫ আলোকে চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি (পিইডিপি৪)এর আওতায় নির্ধারিত ৪২০০০ প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রুটিন মেইনটেন্যান্স কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য প্রতি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৪০০০০ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।এই কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য দেওয়া হয়েছে কিছু শর্ত।

 দিলিপ কুমার বনিক (এফসিএমএ)পরিচালক(পরিকল্পনা ও উন্নয়ন)এর ১১এপ্রিল ২০২১ স্বাক্ষরিত পত্র অবগতির জন্য প্রেরণ করেছেন অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী এলজিইডি,পরিচালক তথ্য পরিকল্পনা, বিভাগীয় উপপরিচালক প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, জেলা প্রশাসক,উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার,মহাপরিচালকের একান্ত সচিব সহ উপজেলা হিসাব রক্ষন কর্মকর্তাকে।

বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলায় নির্বাচিত বিদ্যালয় সমূহের মধ্যে ৬১নং সন্তোষপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এই প্রকল্পের আওতাধীন।রুটিন মেইনটেন্যান্সের টাকা কোন কোন খাতে ব্যয় করা হবে তার লক্ষ্যে বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির মিটিং আহব্বান করেন প্রধান শিক্ষিকা ছায়া রানী ব্রক্ষ্ম।সভাপতি ব্রজেন্দ্রনাথ মজুমদারে সভাপতিত্বে মিটিংয়ে টাকা ব্যয়ের দিকতুলে ধরেন প্রধান শিক্ষকা।

প্রধান শিক্ষিকা  বলেন মাইনর মেরামত কাজ ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে সম্পাদন করতে হবে।  এসএমসির মিটিংয়ে অনুমোদিত হতে হবে এবং ৩০জুন ২০২১এর মধ্যে টাকা ব্যয় করতে হবে ।মেরামতের তালিকা থেকে আলোচনার মাধ্যমে সহ সভাপতি দিলিপ মজুমদার (খোকন) বলেন, পানি বা জলের সমস্যার জন্যপানির পাম্প,পানির ট্যাঙ্কি,দরজা,জানালা,বৈদ্যুতিক লাইট ফ্যানের যে সব ত্রুটি আছে সেই সমস্যা সমাধান করতে প্রধান শিক্ষককে অনুরোধ করেন।এছাড়া বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার বিভিন্ন বিষয় দিকনির্দেশনার কথা আলোচনা করেন।Meet আ্যাপের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্লাশ করার প্রশিক্ষনদেন শিক্ষক ও অভিভাবক সদস্যদের।

মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন ম্যানেজিং কমিটির সদস্য, স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রতিনিধি।