বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সক্ষমতা আছে বলেই আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) বাংলাদেশকে ঋণ দিতে সম্মত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এই ঋণ জনগণের বোঝা না হয়ে বৈশ্বিক সংকট মোকাবেলায় সহায়ক হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বৈশ্বিক সংকটের মধ্যেও বিএনপি দায়িত্বশীল আচরণ না করে সংকটকে ঘনীভূত করার ষড়যন্ত্র করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বিএনপির এসব ‘অতৎপরতা’ রুখে দিতে জনগণকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান কাদের।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে এ সব কথা বলেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক।

বিবৃতিতে আইএমএফ-এর ঋণ নিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্যকে ‘অবান্তর ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ আখ্যা দিয়ে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন কাদের।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের ঋণ পরিশোধের সামর্থ্য আছে বলেই আইএমএফ ঋণ প্রদানে সম্মত হয়েছে। যার মধ্য দিয়ে আরও একবার বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সক্ষমতা প্রমাণিত হয়েছে। অথচ বিএনপির সময় অর্থনৈতিক সক্ষমতা বলতে কিছুই ছিল না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পরনির্ভরতার সেই সংকট থেকে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উত্তরণ ঘটেছে; আইএমএফ-এর এই ঋণ জনগণের জন্য বোঝা না হয়ে সংকট মোকাবিলায় সহায়ক হিসেবে বিবেচিত হবে।

বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, করোনা মহামারির অভিঘাতের মধ্যেই ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের ফলে বিশ্বব্যাপী এক চরম অর্থনৈতিক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। বর্তমানে যে অর্থনৈতিক সংকট প্রতীয়মাণ হচ্ছে, তা একটি বৈশ্বিক সংকট।

সেতুমন্ত্রী বলেন, চলমান বৈশ্বিক সংকটের ভয়াবহ অভিঘাত থেকে দেশের মানুষকে সুরক্ষা দিতে প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল ও দেশপ্রেমিক নাগরিকের দায়িত্বশীল আচরণ এবং কর্তব্যপরায়ণতা নিশ্চিত করা প্রয়োজন। সেখানে বিএনপি এই সংকটকে পুঁজি করে রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। দেশবিরোধী এবং দেশের মানুষের স্বার্থ পরিপন্থি কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত বিএনপির এই হীন অপতৎপরতা রুখে দিতে সকলকে সচেতন হতে হবে।

অনাকাঙ্ক্ষিত এই বৈশ্বিক সংকট মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আাহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।