কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ১৫টি কার্ড দেখিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন স্পেনের রেফারি মাতেউ লাহোজ। বিশ্বকাপের পরে লা লিগার ম্যাচেও কার্ড দেখানো নিয়ে বিতর্ক বেড়েছিল। সমালোচনার মুখে পড়ে এ বার অবসর নিতে চলেছেন লাহোজ। স্পেনের এক সংবাদমাধ্যম এ কথা জানিয়েছে।

আর্জেন্টিনা বনাম নেদারল্যান্ডস ম্যাচে মোট ১৪টি হলুদ কার্ড ও ১টি লাল কার্ড দেখিয়েছিলেন লাহোজ। মেসিকেও হলুদ কার্ড দেখিয়েছিলেন তিনি। মাঠেই লাহোজের সঙ্গে তর্কে জড়িয়েছিলেন মেসি। ম্যাচ শেষে তার চরম সমালোচনা করেছিলেন আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। বাদ যাননি নেদারল্যান্ডসের ফুটবলাররাও। চাপে পড়ে সেমিফাইনালের আগেই দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছিল তাকে।

দেশে ফিরেও বিতর্ক থামেনি। লা লিগায় বার্সেলোনার বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিল এস্প্যানিয়ল। মেসির পুরনো ক্লাবের খেলাতেও দেখা গিয়েছিল মাতেউর কার্ডের মেলা। খেলার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কার্ড দেখিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। হলুদ, লাল কিচ্ছু বাদ যায়নি। এমনকি বাদ যাননি দলের কোচও। বার বার তাঁর সঙ্গে বিতণ্ডায় জড়াতে দেখা গিয়েছিল ফুটবলারদের।

বার্সা ও এস্প্যানিয়ল, দু’দলের মোট ১২জন ফুটবলারকে হলুদ কার্ড দেখিয়েছিলেন মাতেউ। বার্সার জর্ডি আলবা ও এস্প্যানিয়লের ভিনিসিয়াস সৌজাকে লাল কার্ড দেখিয়েছিলেন তিনি। এস্প্যানিয়লের আর এক জন ফুটবলারকে লাল কার্ড দেখিয়েছিলেন মাতেউ। কিন্তু ভারের হস্তক্ষেপে সিদ্ধান্ত বদল করেছিলেন তিনি।

বার্সার কোচ জাভি ও রিজার্ভ বেঞ্চের ফুটবলার রাফিনহাকেও হলুদ কার্ড দেখিয়েছিলেন তিনি। তার পরেই লাহোজের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন বার্সা ও এস্প্যানিয়লের ফুটবলাররা।

লা লিগা ও কোপা দেল রে-র ম্যাচে তাকে দায়িত্ব না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় স্পেনের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। তার পরেই অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন লাহোজ।