তালেবান নিয়ন্ত্রিত ৩০ বাংলাদেশীর অবস্থান নিশ্চিত করেছেন আফগানিস্তানের কূটনৈতিক মিশনের দায়িত্বে থাকা উজবেকিস্তানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো: জাহাঙ্গীর আলম। তাদের মধ্য থেকে সাতজন শিগগিরই দেশে ফিরছেন বলেও জানান তিনি।

মো: জাহাঙ্গীর আলম জানান, ওই সাতজনের মধ্যে দু’জন মার্কিন বিমানবাহিনীর বিমানে করে কাবুল থেকে কাতারের দোহায় পৌঁছেছেন। তারা সেখান থেকে দেশে ফিরবেন। মার্কিন বাহিনীর সাথে কাজ করা এই বাংলাদেশীরা হলেন- বরিশালের ফারুক হোসেন ও কুমিল্লার বাসিন্দা মহিউদ্দিন আহমদ।

তিনি জানান, জাতিসঙ্ঘের তত্ত্বাবধানে কাজাখস্তানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে ব্র্যাকের তিন কর্মকর্তাকে। তারা বর্তমানে দেশটির রাজধানী নুর সুলতানে অবস্থান করছেন। সেখান থেকেই তারা দেশে ফিরবেন। এই বাংলাদেশীরা হলেন- ঢাকার বাসিন্দা মো: করিম শিকদার, রংপুরের আসাদুজ্জামান ও ফরিদপুরের রফিকুল হক মৃধা।

মো: জাহাঙ্গীর আলম জানান, সোমবার জার্মানির একটি ফ্লাইটে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল থেকে উজবেকিস্তান পৌঁছাবেন মো: রেজাউল করীম ও এ এস এম মিজানুর রহমান নামের আরো দুই বাংলাদেশী। সেখান থেকে তারা ট্রানজিট ভিসার মাধ্যমে দেশে ফিরবেন। এছাড়া উজবেকিস্তানে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে যোগাযোগ করে এক ঘণ্টার মধ্যে তাদের ট্রানজিট ভিসার ব্যবস্থা করে দেয়া হয়েছে বলেও জানান এই রাষ্ট্রদূত।

বর্তমানে আফগানিস্তানে বাংলাদেশের কোনো দূতাবাস না থাকায় দেশটির সাথে কূটনীতিক যোগাযোগ তদারক করছে উজবেকিস্তানের বাংলাদেশ দূতাবাস।

উল্লেখ্য, ৬ আগস্ট দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় নিমরোজ প্রদেশে রাজধানী যারানজ নিয়ন্ত্রণে নেয় তালেবান। এটিই ছিল তালেবানের নিয়ন্ত্রণে নেয়া প্রথম আফগান প্রাদেশিক রাজধানী। যারানজের পর ১০ দিনের মাথায় দেশটির রাজধানী কাবুলও নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ফেলে তালেবান।