সমরেশ মণ্ডলকে সভাপতি এবং এইচ.এম.কিবরিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) মনোবিজ্ঞান এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩ মার্চ) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় মনোবিজ্ঞান এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের আহবায়ক প্রবাল চন্দ্র ঘোষ অপুর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ০৩ (তিন) বছর মেয়াদী ১১ সদস্যবিশিষ্ট আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের ১১ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটি আগামী তিন বছরের জন্য অনুমোদন দেওয়া হলো।আগামী সাত (০৭) কার্যদিবসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

উক্ত কমিটির সহ-সভাপতি পদে আছেন-মোঃ সাইদুর রহমান (কাইয়ুম) ও মোঃ এরশাদ আলী রহমান। যুগ্মসাধারণ সম্পাদক পদে আছেন- মোঃ রাসেল আহম্মেদ ও মোঃ কাইয়ুম মিয়া টিপু। উক্ত কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক হিসাবে আছেন-ইয়াসিন মোল্লা আরাফাত ও নাজনিন সরকার সুরভী। এছাড়া দপ্তর সম্পাদক, প্রচার সম্পাদক ও অর্থ সম্পাদক হিসাবে আছেন যথাক্রমে বিজন বাড়ৈ, অমিতাভ রায় ও সায়মা রহমান রথি।

মনোবিজ্ঞান এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য এরশাদ আলি রহমান বলেন, কমিটিতে থাকুক আর না থাকুক নিজের সংগঠন হিসেবে সংগঠনের স্বার্থে কাজ করে যেতে হবে। আর প্রাক্তনদের মিলনমেলার জন্য বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করতে হবে।

সদ্য সাবেক আহবায়ক প্রবাল চন্দ্র ঘোষ অপু বলেন,আমাদের যারা কমিটিতে যারা ছিলো তাদের সহযোগিতায় এই পর্যন্ত আসতে পেরেছি। ক্যারিয়ার নিয়ে কাজ করতে হবে। মুজিব আদর্শ বুকে রেখে আমাদের সংগঠন কে এলামনাই এসোসিয়েশন এর ব্রান্ড হিসেবে এগিয়ে নিতে হবে।

নতুন কমিটির সভাপতি সমরেশ মন্ডল বলেন, সদ্য সাবেক কমিটির সকলকে ধন্যবাদ। নতুন কমিটির সবাইকে সাথে নিয়ে পূর্ন উদ্যামে এগিয়ে নিতে কাজ করার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।

সাধারণ সম্পাদক এইচ. এম. কিবরিয়া বলেন- সাবেক বর্তমান সবাইকে সাথে নিয়ে এসোসিয়েশন এর জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টার মাধ্যমে আমরা রোল মডেল হিসেবে গড়ে তুলব। এক সপ্তাহের মধ্যে পুর্নাঙ্গ কমিটি করবো।

সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন মোল্লা আরাফাত বলেন, সাবেক বর্তমান সবাইকে নিয়েই কাজ করে এগিয়ে যেতে হবে। বর্তমানরা একসময় এলামনাইয়ে আসবে তাই তাদের এখন থেকে কাজের মধ্যে থাকা লাগবে।

যুগ্মসাধারণ সম্পাদক কাইয়ুম মোঃ টিপু বলেন,জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশন গুলোর মধ্যে মনোবিজ্ঞান এলামনাই এসোসিয়েশন কে ব্র‍্যান্ড হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।