ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাকসিম এ খানের বিরুদ্ধে মন্ত্রণালয়ে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ দেওয়ার চারদিন পর পদ হারালেন ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা। তাকে সরিয়ে এ পদে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বোর্ডের সদস্য সুজিত কুমার বালাকে।

রোববার (২১ মে) স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়, পানি সরবরাহ ও পয়োনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ আইন, ১৯৯৬ এর ৭(১) ধারা অনুযায়ী ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের সদস্য সুজিত কুমার বালাকে চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হলো। পানি সরবরাহ ও পয়োনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ আইন, ১৯৯৬ এর ৯(১) ধারা অনুযায়ী তিনি ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের পূর্ববর্তী চেয়ারম্যান ড. প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফার স্থলাভিষিক্ত হবেন।

এর আগে গত বুধবার (১৭ মে) তাকসিম এ খানের বিরুদ্ধে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চার পৃষ্ঠার লিখিত অভিযোগ দেন গোলাম মোস্তফা। ওই অভিযোগপত্রে তাকসিম এ খানের বিরুদ্ধে সীমাহীন অনিয়ম-দুর্নীত ও স্বেচ্ছাচারিতাসহ বিভিন্ন অভিযোগ তোলেন গোলাম মোস্তফা। তবে ওয়াসা সংশ্লিষ্টরা জানান, ঢাকা ওয়াসার বোর্ড চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাকসিম এ খানের দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে চলে আসে। আর এর জেরেই চেয়ারম্যান তার পদ হারিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জানা যায়, বোর্ডের চেয়ারম্যান সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টকশোতে অংশ নিয়ে এমডির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করেন। পরে ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পক্ষ নিয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গত ১১ মে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগ করেন ওয়াসার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের তিনটি ইউনিয়নের নেতারা। এতে দাবি করা হয়, ঢাকা ওয়াসার যাবতীয় কার্যক্রম বোর্ডের সিদ্ধান্তক্রমেই বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। টেলিভিশন টকশোতে বোর্ড চেয়ারম্যানের বক্তব্য ঢাকা ওয়াসার অর্জন ও সরকারের অবদানকে হেয় করার শামিল।